আজকে যে সরকার, কালকে তো সে-ই বিরোধী দল

আমরা একটা খুবই অস্থির সময় পার করছি। আমি খুব অবাক হই যখন দেখি কোটি কোটি মানুষ মাথার খুলির ভেতর একটা সম্পূর্ণ অব্যবহৃত মগজ নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে। দুটো চোখ নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে যা দিয়ে দেখেও তারা দেখতে পায় না। মানুষ হিসেবে আমরা আসলে ঠিক কোন পর্যায়ের আমি বুঝে উঠতে পারি না। বেশিরভাগ সময়ই আমার মনে হয় আমরা এখনো সেই প্রস্তরযুগের শিকারী মনোভাব থেকে নিজেদের মুক্ত করতে পারি নি। আজও আমরা শুধু দুবেলা খাবার পেলেই খুশি। অত্যাচার এর বিরুদ্ধে মুখ খোলা তো দূর, আমরা যে অত্যাচারিত, নিপীড়িত এবং নির্যাতিত সেটা বোঝার ক্ষমতাই আমরা হারিয়ে ফেলেছি।

আমরা ক্ষমতার লড়াই লড়ছি। প্রতিদিন রক্তের বন্যায় ভেসে যাচ্ছে রাজপথ, বাজার, মাঠ। বোমা হামলা, গুলি করে হত্যা, এসব এখন প্রতিদিনের ঘটনা। যেন মনে হয় সকালে ঘুম থেকে উঠে মুখ হাত ধোয়ার মত একটা বিষয়। আমরা কেউ অবশ্য এতে কিছু মনে করছি না। আমরা শুধু এই ভেবে সান্তনা দিচ্ছি এসব রাজনৈতিক কর্মকান্ড। আমরা সাধারণ লোক এতে নাক না গলানোই ভালো। কিন্তু আমরা ভুলে যাচ্ছি, রাজপথ আমার মত সাধারণ লোকের রক্তেই ভিজে আছে। যার যায় সে বোঝে। আমাদের যায়নি বলে আমরা বুঝি না। কিন্তু যেদিন বুঝব, সেদিন কি যা গেল তা ফিরে পাব?

বিরোধী দল যাই করুক, সরকার কিছুই করবে না,  কারণ আজকে যে সরকার, কালকে তো সে-ই বিরোধী দল।

One thought on “আজকে যে সরকার, কালকে তো সে-ই বিরোধী দল”

  1. অপরিপক্ক মস্তিষ্কও না। অনেকটা মাঠে চরণকারী পশুসম। “আমি আমারটা খাওয়া এবং ত্যাগ করা ব্যতীত অন্য কিছু ভাবিনা”।. নেকরের আক্রমনে ২‍‍‌‌-৪ জন সহচর যাকতো যাক। প্রতিরোধ কিংবা প্রতিবাদ করতে জানিনা।
    আমরা এমনই পোষ্য যে মনিব যত খারাপই হোক না কেন তাদের ভিন্ন অন্য কাউকে ভাবতে পারি না। আমরাদের মাঝে একটাও আলফা জাত নাই যার পিছনে কেউ দাড়াবে?? নিজেরে যখন ভাবি তখনো অন্ন্যের দিকে চেয়ে থাকি: কারন আমিও ব্যতীক্রম নই। 🙁

    মৃত্যুর মুখে থেকেও মৃত্যুকে এতো ভয়?? হাসিনাকে সামনে পেয়েও ভোক্তভুগী কেউই কি একবার তার মুখের সামনে ধিক্কার দিলনা?? আরো তিক্ত কিছু না করুক!!!

    মানুষ না পাই, একটা আলফা বাঙ্গালী প্রাণীর আবীরভাব খুব দরকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *