বাক স্বাধীনতা – পর্ব ৩

: কি হরতাল হবে? আরো লাগবে? দিব?

– না ভাই, আর লাগবে না। অনেক হইসে। এইবার থামেন।
: কি বলেন এইসব? আমাদেরকে সরকার এইভাবে নির্যাতন করছে, আমরা প্রতিবাদ করব না?
– করেন, প্রতিবাদ করতে তো কেউ মানা করে নাই। গরিব মারেন কেন?
: আমরা গরিব মারি না। গরিব রে তো পুলিশ গুলি কইরা মারে। আমরা খালি বড়লোকের গাড়ি ভাঙ্গি। আর আগুন দেই।
– ভাই, আপনার এই কথাটা ঠিক না। হরতাল দিলে সব চেয়ে বেশি ক্ষতি হয় গরিব প্রান্তিক চাষীদের। ওরা জমি বর্গা নিয়ে টাকা ধার করে মাসের পর মাস ধরে চাষ করে। তারপর যখন ফসল তুলে তখন আপনাদের হরতালের কারণে ফসল বিক্রি করতে পারে না। হাজার হাজার মন ফসল নষ্ট করছেন আপনারা। লক্ষ লক্ষ গরিব চাষী নি:স্ব হয়েছে আপনাদের হরতালের কারণে। ওরা ওদের ক্ষতিটা ৫ বছরেও পুষিয়ে নিতে পারে না।
: হা হা হা। আপনে তো ভাই বোকার দুনিয়ায় আছেন। কোনো ফসল নষ্ট হয় না। সব আমরা সস্তায় কিনে রাখি। গোডাউনে নিয়ে ফরমালিন দিয়ে ফেলে রাখি। হরতালে বাজার এ ক্রাইসিস হয়ে দাম বাড়ে, পরে আমরা বেশি দামে বিক্রি করি। গরিব মরে না রে ভাই, মরে না।
– তাহলে তো ভাই হরতাল এ আপনাদের ভালই ব্যাবসা। সরকার এর নির্যাতন আসলে একটা সাইনবোর্ড, ঠিক কিনা?
: ওই মিয়া আপনে তো দেকতাসি শাহবাগী লাইনের লোক। এইসব নাস্তিকগো লগে থাইকা আপনেও দেখি নষ্ট হয়া গেসেন গা। ওই কে আসস, হালার পুতেরে বাইন্দা ভালো মত ডলা দে !!!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *