উপত্যকায় অরন্য – এপিসোড ১

ধারাবাহিক উপন্যাসঃ উপত্যকায় অরন্য ।

এপিসোড ১

একটা ছবি তুলে বিপদে পড়ে গিয়েছে অরন্য। নিক্করের নতুন ২০০-৫০০ লেন্সের ক্ষমতা পরীক্ষা করতে গিয়ে আচমকা একটা ছবি তুলে ফেলেছে অরন্য। ছবিটা যখন তুলেছিল তখন বিষয়টা তেমন খেয়াল করেনি সে। সাজেক এর একটা কটেজের বারান্দায় কেউ একজন বসেছিল। সূর্যদয়ের সময় ছিল, নরম হলুদ আলোয় মুখটা এক পলক দেখেছিল অরন্য। অনেক দুর থেকে খালি চোখে তেমন ভাল দেখেনি। নতুন কেনা টেলিলেন্সটা দিয়ে তাই পটাপট কয়েকটা ছবি তুলে নিল অরন্য। এরপর সারাদিন পাখি দেখার জন্য ছুটাছুটি করেছে। কিন্তু ভাগ্য তেমন ভাল ছিল না। একেতো শীতের সকাল, কুয়াশায় ঢাকা। তার উপর সাজেকের পাহাড় মাটি থেকে প্রায় দুহাজার ফিট উচুতে। পাখি নেই বললেই চলে।

 

ব্যর্থ অভিযান শেষে রাতে কটেজে ফিরে ক্যামেরা থেকে ছবিগুলো ল্যাপটপে নেবার সময়ই ছবিটিতে চোখ আটকে গেল অরন্যর। আটকে গেল বলতে আটকেই গেল। কোনভাবেই চোখ ফেরানো যাচ্ছে না। নিজের তোলা কোন ছবি দেখে অরন্য কখনোই এতটা মুগ্ধ হয়নি। এটা কি সকালের সেই পরীক্ষামুলক স্ন্যাপগুলোর একটা? ছবিটা কি অরন্যর ছবি তোলার হাতের গুনে এতটা ভাল হয়েছে? নাকি যার ছবি তার গুনে? অরন্য কিছুটা ঘোলাটে মোহে পড়ে গেল। এক দৃষ্টিতে ঘন্টাখানেক ছবিটার দিকে তাকিয়ে থাকল সে। হঠাত করেই মনে হলো এক্ষুনি ছুটে যাওয়া দরকার। একে খুজে বের করতেই হবে। ছবিটার এই মায়াবী মোহ অরন্যর ছবিতোলার গুন নাকি মেয়েটার অপার্থিব সৌন্দর্যের গুন তা না জানলে অরন্য মনে হয় আর কিছুই করতে পারবে না। অরণ্য ছবিটা মোবাইলে কপি করে ছুটে গেল সেই কটেজটার কাছে যেখানে সকালে সেই মায়াবিনী বসে ছিল.

 

 


কপিরাইটঃ লেখক © ২০১৭। সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত।
probhat.com এ প্রকাশিত যেকোন লেখা প্রভাতের পূর্ব অনুমতি ব্যাতিত অন্যত্র প্রকাশ করা কিংবা অন্য যেকোন মাধ্যমে কপি পেস্ট করা বাংলাদেশ কপিরাইট আইন দারা নিষিদ্ধ।
প্রভাতে প্রকাশিত সমস্ত লেখা বাংলাদেশ কপিরাইট আইন দ্বারা নিবন্ধিত। প্রভাত একটি বাংলা সাহিত্য বিষয়ক ওয়েব সাইট। এই ওয়েব সাইটে প্রকাশিত সমস্ত লেখা লেখকের ব্যাক্তিগত সম্পদ। লিখিত অনুমতি ব্যতিরকে এই সাইটের কোন লেখা কপি করা, পরিবর্তন করা, পরিমার্জন করা, ছাপানো ইত্যাদি সম্পূর্ণ বেআইনি এবং দণ্ডনীয়। প্রভাতের সাথে যোগাযোগ করতে চাইলে লিখুন এই ঠিকানায় admin@probhat.com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *